শ্রীনগরে রুদ্রপাড়ায় বেহাল রাস্তায় ভোগান্তি!

প্রকাশিত: ৫:৫৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০২১

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: শ্রীনগর উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের রুদ্রপাড়ায় একটি বেহাল রাস্তায় চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন এলাকাবাসী। রুদ্রপাড়া শফিকের দোকান থেকে ছত্রভোগ পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার কাঁচা রাস্তাজুড়ে এখন শুধুই কাঁদামাটি ও গর্তে ভরা। বাধ্য হয়েই এলাকাবাসী রাস্তার বিভিন্ন স্থানে বালুর বস্তা ফেলে যাতায়াত করছেন। ওই রাস্তার শফিকের দোকান থেকে হাসমত মাওলানার বাড়ি পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ফুট রাস্তা পূর্বে ইট সলিং থাকলেও কয়েক বছর ইট অদৃশ্য হয়ে গেছে। দীর্ঘদিনের সংস্কারের অভাবে রাস্তায় বৃষ্টির পানি জমে রাস্তাটি দিনদিন বেহাল হয়ে পড়ে। নাজুক রাস্তায় এলাকার কয়েক হাজার মানুষ চলাফেরায় চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।
সরেজমিনে দেখা যায়, রুদ্রপাড়া স্থানীয় ইউপি সদস্য’র বাড়ির থেকে শফিকের দোকান পর্যন্ত রাস্তাটি পাকা। অপরদিকে শফিকের দোকান থেকে রুদ্রপাড়ার জোড়ামসজিদ হয়ে ছত্রভোগ পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তা সম্পূর্ণ কাঁচা। পুরো রাস্তাজুড়ে কাঁদামাটি ও জলাবদ্ধতায় ভরা অসংখ্য গর্তে ভরপুর। এসব গর্তে বৃষ্টির পানি জমে থাকতে দেখা গেছে। রাস্তার কাঁদামাটি এড়াতে বিভিন্ন স্থানে বালুর বস্তা ফেলে পথচারীদের যাতায়াত করতে দেখা গেছে। এই পরিস্থিতিতে যানবাহন চলাচল প্রায় অসম্ভব হয়ে পরেছে। অন্যদিকে বৃদ্ধ, শিশুসহ অসুস্থ রোগীরা চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।
ওই এলাকার তাসলিমা বেগম (৫৫), রহিমা বেগম (৬৫), নুরজাহান (৩০), ফিরোজ (৩২), নাছির (৪৫), জুনায়েত মোড়ল (৩৫), হাবিবুর শেখ (৫০), রনিসহ (৪০) অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দীর্ঘ তিন বছর যাবত রাস্তার সংস্কার কাজ হবে শুনে আসছি। কিন্তু রহস্যজনক কারণে আর কাজ হচ্ছে না। এর আগে এই রাস্তার আংশিক অংশে ইট বিছানো ছিল। ইটগুলো উঠানোর সময় ইসমাঈল মেম্বার বলেছিল রাস্তা সংস্কার হবে। কিন্তু রাস্তার কাজ আর হয়ে উঠেনি। ইটগুলোও এখান থেকে অদৃশ্য হয়ে গেছে। বাধ্য হয়েই কাঁদার ওপর দিয়ে বালির বস্তা ফেলে কোন রকমে হাঁটা চলাফেরা করছি আমরা। অসুস্থ রোগী ও কৃষি পণ্য আনা নেয়ায় আরো ভোগান্তিতে পরতে হচ্ছে ভূক্তভোগীদের। এই রাস্তা দিয়ে অটোরিক্সাতো দূরের কথা বাইসাইকেল পর্যন্ত যাওয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে। দর্ভোগ লাঘবে রাস্তা সংস্কারের দাবীতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্টদের সুদৃষ্টি কামনা করেন স্থানীয়রা।
এ ব্যাপারে বাঘড়া ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় ইউপি মো. ইসরাফিলের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, রাস্তাটি সংস্কার করা হবে। এ বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদে আলাপ আলোচনা চলছে। শফিকের দোকান থেকে হাসমত মাওলানার বাড়ি পর্যন্ত রাস্তায় পূর্বের ইটের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, রাস্তায় মাটি ভরাট কাজের জন্য এখানকার ইট উঠানো হয়েছিল। ইটগুলো এখন কোথায় রাখা হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ইটগুলো লুট হয়ে গেছে।

শ্রীনগর,মুন্সীগঞ্জ
১৮/০৮/২১ইং