বাগমারায় মাদ্রসা ভবন নিন্মমানের ইট ব্যবহারের অভিযোগ নির্মাণে কাজ বন্ধ করে দিলেন প্রকৌশলী

প্রকাশিত: ১০:৪২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০২১


বাগমারা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার গোপালপুর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় নি¤œমানের ইট দিয়ে চারতলা একাডেমিক ভবন নির্মাণের অভিযোগে উঠেছে। সরকারী কাজে নি¤œমানের ইট ব্যবহারের অভিযোগে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর রাজশাহীর সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান রবিবার দুপুরে মাদ্রাসায় গিয়ে ৩নং ও ২নং ইট দিয়ে বিল্ডিংয়ের গাথনি দেখে সংগে সংগে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন।
জানা যায়, সারা দেশের ন্যায় শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের উদ্যোগে বাগমারা উপজেলায় প্রায় ২২টি মাদ্রাসায় চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন নির্মাণ কাজ চলছে। নিবার্চিত বেসরকারী মাদ্রাসা সমূহের উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় উপজেলার গোপালপুর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার চারতলা একাডেমিক ভবনটি বাস্তবায়ন করছেন শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর রাজশাহী। এ লক্ষে গত বছর ৭ই মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনে উদ্বোধন করা হয়েছে। শুরুতে কাজ ভালো হলেও পরবর্তিতে সম্প্রতি ভবনের গাথনিতে নি¤œমানর ইট ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া যায়। দীর্ঘ দিন প্রতিষ্ঠান বন্ধের পর গত ১৫ আগষ্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকরা এসে নি¤œ মানের ইট গাথনি দেখতে পায়। বিষয়টি স্থানীয়সহ শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর রাজশাহীর সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমানকে অবহিত করা হলে তিনি ওই দিনই দুপুরে মাদ্রাসায় এসে নি¤œমানের ইট দেখে কাজ বন্ধ করে দেন। এছাড়া ভালো ইট না লাগানো পর্যন্ত কাজ বন্ধের নির্দেশ প্রদান করেন।
এ বিষয়ে ওই কাজের ঠিকাদার আফসান এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এটা ইচ্ছা করে না। ভাটার মালিক কয়েক গাড়ি জলদাগি এবং নি¤œমানের ইট দিয়েছে। সেগুলোই ব্যবহার করা হচ্ছিল। ভাটার মালিকের সাথে কথা হয়েছে, যে কতক গাড়ি ইট পাঠিয়েছে সেগুলা তারা ফেরত নেবে। তিনি আরো বলেন, আমরা কখনও খারাপ কাজ করিনা। এটা ভাটার অসময়ের ইটের কাণে এঘটনা ঘটতে পারে।

এ ব্যাপারে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর রাজশাহীর উপ-সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, উপজেলার বিভিন্ন স্থানে এ রকম প্রায় বিশটির অধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। কোন প্রতিষ্ঠানেই এমন মানহীন ইট নির্মাণ সামগ্রীর ব্যবহার হয়নি। কোন ভাবেই নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহার করা যাবে না। তিনি আরো বলেন, ঠিকাদাররা যতো প্রভাবশালীই হোক না কেন তাকে দরপত্র মোতাবেক সঠিক ভাবে কাজ করতে হবে। সঠিক কাজ না হলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা আছে বলে জানান তিনি।

মোঃ আফাজ্জল হোসেন
বাগমারা,রাজশাহী।
মোবাইল ০১৭১২৮৮১১০১
১৬.৮.২০২১ ইং