ঢাকা-দোহার সড়কে আরাম পরিবহন বন্ধ, চরম ভোগান্তিতে যাত্রীরা

প্রকাশিত: ১১:৫৬ অপরাহ্ণ, জুন ৬, ২০২০

তাইজুল ইসলাম উজ্জ্বল : ঢাকা-দোহার সড়কের ভাগ্যকুল আরাম পরিবহন বন্ধ থাকার কারনে প্রতিনিয়ত চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে যাত্রী সাধারনকে।ঢাকা-দোহার সড়কে প্রতিদিন শত শত নারী-পুরুষ তাদের প্রয়োজনে আরাম,নগর ও সেবা পরিবহনে যাতায়াত করে থাকে। একাধিক যাত্রী অভিযোগ করে বলেন, নগর ও সেবা পরিবহন চলাচল করলেও আরাম পরিবহন বন্ধ থাকার কারনে তাদের চরম ভোগান্তিতে পরতে হচ্ছে।খোজ নিয়ে জানাযায়, আরাম পরিবহনের মালিক কতৃপক্ষ কয়েক জন ড্রাইভারের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করার পর হতে পরিবহন বন্ধ রয়েছে।

একাধিক আরাম পরিবহন ড্রাইভার জানায়, করোনা ভাইরাস রোধে সারাদেশের ন্যায় ঢাকা-দোহার সড়কের ভাগ্যকুল আরাম পরিবহনও বন্ধ থাকে। দীর্ঘদিন পরিবহন বন্ধ থাকার কারনে তাদের সংসার চালাতে হিমসিম খেতে হচ্ছে। গত ২ জুন সারাদেশের ন্যায় আরাম পরিবহন কোম্পানী তাদের ৩২ টি পরিবহনের মধ্যে মাত্র ১০টি পরিবহন চলাচল শুরু করে। পরদিন ৩ জুন মালিক কতৃপক্ষ পরিবহন বন্ধ করে দেয়। পরিবহনে ৪৫ জন ড্রাইভার ও ৭৫ জন হেলপার রয়েছে। অথচ মালিক কতৃপক্ষ একতরফাভাবে স্বজন প্রীতি করে মাত্র ১০ জন ড্রাউভারকে দিয়েই গাড়ি চালানো শুরু করে। অন্যান্য ড্রাইভারদের গাড়ি চালাতে দেয়া হচ্ছে না। পরিবহন চলাচলের সময় সড়কে ক্ষতি সাধন হলে আমাদের কাছ থেকে টাকা কেটে নেয়া হয়। টাকা কেটে না নেওয়ার জন্য আমরা মালিক কতৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছি।এছারা পরিবহনের ফোরম্যান জামাল যখন তখন আমাদের সাথে অত্যন্ত খারাপ আচরন করে। আমরা তার অপসারন চাই। এ সকল বিষয় নিয়ে আরাম কতৃপক্ষ আমাদের কয়েক জন ড্রাইভারের নামে থানায় অভিযোগ করেছে।

অভিযোগের বিষয়ে এস আই সাদেকুরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়ে ড্রাইভারদের সাথে কথা বলেছি। আশা করছি দু’এক দিনের মধ্যে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। এ বিষয়ে ভাগ্যকুল আরাম পরিবহন কোম্পানীর ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম হোসেন খানের কাছে জানতে চাইলে, তিনি বলেন আমি ব্যস্ত আছি সাক্ষাতে কথা বলব।