Home / জাতীয় / শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমানের পরিবারকে নানা রকম হয়রানীর অভিযোগ!

শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমানের পরিবারকে নানা রকম হয়রানীর অভিযোগ!

ইখতিয়ার উদ্দীন আজাদ, নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁয় শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমানের অসহায় পরিবার স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহলের রোষানলে পড়ে বর্তমানে চরম মানবেতর জীবন যাপন করছে। ওই পরিবারের সদস্যদের সাথে প্রতিনিয়ত নানা ভাবে হয়রানীর ও শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে তারা ব্যক্তি গত ভাবে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন। এ বিষয়ে একাধিকবার থানায় লিখিত অভিযোগ করেও পাননি কোন প্রতিকার।
ভুক্তভোগীর অভিযোগে জানা যায়, জেলার সাপাহার উপজেলার শিরন্টি (ময়নাকুড়ি) গ্রামের বাসিন্দা বীরমুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধকালীন সময়ে পাক হানাদার বাহিনীর সাথে সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ হয়ে ছিলেন। তার অবর্তমানে স্ত্রী নুরজাহান বেগম বুলবুল হোসেন ও ঝর্ণা খাতুন দুই সন্তানকে নিয়ে স্বামীর পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত শিরন্টি মৌজার ১১৯৩ দাগের ৮৮ শতক সম্পত্তির মধ্যে পৌনে ১৩ শতক সম্পত্তির উপর বসত ঘর নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে সেখানে তাঁরা বসবাস করছেন। এ দিকে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বসতভিটার ওই সম্পত্তি টুকু হাতিয়ে নিতে ওই গ্রামের প্রভাবশালী বেলাল, শাহজাহান, জাকির, জিয়াউর, গোলাম মোস্তফা, রফিকুল ইসলাম, জামাল উদ্দীন ও হুমায়ন কবির মরিয়া হয়ে উঠেছে। বিভিন্ন সময়ে তারা অসহায় ওই শহীদ পরিবারের বাড়ি ঘরে হামলা ভাঙচুর ও ওই পরিবারের সদস্যদের উপর অন্যায় ভাবে নানা রকম অত্যাচার ও নির্যাতন চালাতে থাকে।
শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমানের এক মাত্র পুত্র বুলবুল ইসলাম জানান, প্রতিপক্ষের লোকজন তাদের উপর দিনের পর দিন নান রকম অত্যাচার ও নির্যাতন চালিয়ে আসছেন। বসতভিটার ওই সম্পত্তি তার পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ও রেকর্ডীয় সম্পত্তি কেবল মাত্র অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে প্রতিপক্ষরা প্রতারণা করে খাস খতিয়ানের সম্পত্তি অংশ হিসেবে দিয়ে মুক্তিযোদ্ধার নিষ্কন্টক সম্পত্তি তারা নিজ দখলে নিয়ে আত্মসাতের পাঁয়তারা করছেন। সে কারণে শহীদ মুক্তিযোদ্ধার ওই পরিবার নিজ বসত বাড়ি নির্মাণে বিভিন্ন প্রকার ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছেন। ইতোমধ্যে বাড়ি নির্মাণে বাঁধা দেয়া সহ মামলা মোকদ্দমা দিয়ে ওই পরিবারটিকে হয়রানী করা হয়। শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমানের বৃদ্ধা স্ত্রী ও পরিবার পরিজনের নিরাপত্তার জন্য একাধিক বার থানায় লিখিত অভিযোগ করা হলেও এর কোন প্রতিকার পাননি। ভুক্তভোগী বুলবুল আরো জানান, প্রতিপক্ষের অপর নেতা বিএনপির সাবেক ওয়ার্ড সভাপতি রফিকুল ইসলাম ও শিরন্টি ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক বেলালের দাপটে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন নিরব ভুমিকা পালন করছে। গত ২২ এপ্রিল দুপুরে শহীদ মুক্তিযোদ্ধার বাড়ির জায়গা জবর দখলের চেষ্টাসহ মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের লোকজনের উপর প্রকাশ্যে শারীরিক নির্যাতন চালায়। ঘটনার সময় থানায় জানানো হলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। নিরুপায় হয়ে পুলিশের হট লাইন-৯৯৯ এ ফোন করা হলে থানার এস.আই নয়ন কর ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। অপরদিকে, গত ৩ মে দুপুরে প্রভাবশালী বেলাল ও রফিকুল তাঁর লোক জন বুলবুলের স্ত্রী আঞ্জুুয়ারাকে বাড়ির সামনে থেকে চুলের মুঠি ধরে টানা হেঁচড়া করে। এ সময় ইট দিয়ে আঘাত করে আঞ্জুুয়ারার হাতের আঙ্গুল তাঁরা থেঁতলে দেয়। নির্যাতনের শিকার আঞ্জুুয়ারা এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত বেলাল উদ্দীনের সাথে কথা হলে তিনি বুলবুলের সকল অভিযোগ অসত্য বলে দাবী করেন।
উপরোক্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসুল আলম শাহ বলেন, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সাথে প্রতিপক্ষের জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধ চলছে। অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হইবে।

About admin

Check Also

শ্রীনগরে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়নের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ

শ্রীনগর(মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ-মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগর উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়নের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা বীরতারা ইউনিয়নের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *